শুরু হলো বিএসপিএ পপুলার চয়েজ পুরষ্কার
December 18th,2016

বছর ঘুরে ফিরে এলো কুল-বিএসপিএ স্পোর্টস অ্যাওয়ার্ড। আগামী বছরের শুরুতে জমকালো আয়োজনে তুলে দেয়া হবে ২০১৫ ও ২০১৬ সালের সেরাদের পুরষ্কার। ক্রীড়াক্ষেত্রে বাংলাদেশের সবচেয়ে প্রাচীন ও ঐতিহ্যবাহী এই পুরস্কার দিয়ে আসছে বাংলাদেশ স্পোর্টস প্রেস অ্যাসোসিয়েশন (বিএসপিএ)। দেশের ক্রীড়াসাংবাদিক ও লেখখদের সবচেয়ে পুরনো সংগঠন বাংলাদেশ ক্রীড়ালেখক সমিতি প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল ১৯৬২ সালে। ১৯৬৪ সাল থেকে সেরা খেলোয়াড়-কর্মকর্তা-সংগঠক-পৃষ্ঠপোষকদেও পুরষ্কৃত করার এই ধারা চালু হয়।

গতবারের ধারাবাহিকতায় এবারো বিএসপিএ অ্যাওয়ার্ড পৃষ্ঠপোষকতা করছে দেশের অন্যতম বৃহৎ করপোরেট প্রতিষ্ঠান স্কয়ার গ্রুপ। তাদের ব্র্যান্ডকুল-এর সৌজ্যনে বিএসপিএ অ্যাওয়ার্ড নামকরণ করা হয়েছে কুল-বিএসপিএ অ্যাওয়ার্ড নামে।

গতবারের ধারাবাহিকতায় দর্শক ভোটে পপুলার চয়েজ অ্যাওয়ার্ড বেছে নেয়া হবে। যার কার্যক্রম শুরু হচ্ছে আগামীকাল মহান বিজয় দিবসে। ১৬ ডিসেম্বর বাংলাদেশের বিজয় দিবসকে বেছে নেয়া হয়েছে এই কার্যক্রম শুরুর জন্য।

এবার দুই ধাপে হবে পপুলার চয়েজ অ্যাওয়ার্ড।

১. দর্শক মতামত
২. দর্শক পছন্দের সেরা পাঁচ খেলোয়াড়ের ভোটিং

যে কেউ পৃথিবীর যে কোন প্রান্ত থেকে ২০১৬ সালের সেরা ক্রীড়াবিদের নাম প্রস্তাব করতে পারবেন। ২৫ ডিসেম্বও পর্যন্ত জানানো যাবে এই মন্তব্য। কুলের ফেসবুক পেজ www.facebook.com/Kool.GetNoticed-এ গিয়ে মন্তব্য লিখতে হবে। এছাড়া বাংলাদেশ ক্রীড়ালেখক সমিতির ওয়েবসাইট www.bspa.com.bd -তে গিয়েও মন্তব্য জানানো যাবে।

গবার কমেন্টের ভিত্তিতে সেরা পাঁচ নির্বাচনের পর ২০১৭ সালের ১ জানুয়ারি শুরু হবে ভোটিং। সর্বোচ্চ ভোটপ্রাপ্ত ক্রীড়াবিদ পাবেন পপুলার চয়েজ অ্যাওয়ার্ড। যা ঘোষণাও তুলে দেয়া হবে কুল-বিএসপিএ অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানে।